• শনিবার ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ২০শে আগস্ট, ২০২২ ইং
  • রাত ১:৩৪

স্বপ্ন দেখার বেলায় কোন সাবধানতা নয় — শামীমা চম্পা

5 September, 2020 PM 8:26 ৭৮৩ বার দেখা হয়েছে

ং যেকোন সাফল্য বা অর্জনের মূলেই থাকে আকাঙ্খা বা স্বপ্ন। জীবনে ছোট বড় যে অর্জনই থাকুক না কেন, তার পেছনে স্বপ্ন  থাকাটা জরুরি। তবে তার পূর্বশর্ত হলো বেঁচে থাকার  প্রবল ইচ্ছেশক্তি। প্রত্যেক প্রাণীকে মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে। এটা অবধারিত বা বলতে পারেন মৃৃত্যু অবধারিত। এটা জেনেও স্বপ্ন দেখতে হবে চিরদিন বেঁচে থাকার।

স্বপ্ন ছাড়া কোন মানুষ পরিপূর্ণ মানুষ হতে পারে না। আমরা প্রায়ই শুনে থাকি বা বলি যেকোন কিছুতে সাবধান থাকা ভালো সচেতন থাকা ভালো। সাবধানতা ভালো কিন্তু  স্বপ্ন  দেখার বেলায় যেন সাবধান না হয়। কে কী ভাবলো, আমার কি অবস্থান, আমি পারবো কি না, সময় আছে কি না, লোকে কি ভাববে এতো কিছু ভেবে  স্বপ্ন দেখতে নেই। তাহলে   স্বপ্ন  হতাশায় ভোগবে।

স্বপ্নের  ধরণ যেরকমই হোক না কেন স্বপ্ন  থাকতেই হবে।  আপনি খুব করে চান জীবনের প্রতিটা মুহুর্তে আনন্দে হাসি খুঁশি থাকতে। সবকিছুতে সুখ খোঁজার চেষ্টা করুন। হোক সেটা মায়ের হাসি কিংবা চাঁদের হাসি। হোক শিশির ভেজা ঘাস অথবা মেঘ ভরা আকাশ।  প্রচুর অর্থ বা বিলাসবহুল জীবনযাপন করাই যে শুধু  স্বপ্ন তা নয়। জীবন সৌন্দর্যে পূর্ণ।

ফুলের দিকে থাকিয়ে দেখুন কেমন অনুভূত হয়! শিশুদের হাসি মুখের  দিকে তাকান, বৃষ্টির রিমঝিম শব্দ শুনুন, মাটির ঘ্রাণ নিন, বাতাসের ছোঁয়া অনুভব করুন, সমুদ্রের গর্জন শুনন জীবনকে পূর্ণভাবে উপভোগ করুন। সিচ্যুয়েশন কোন বাধা নয়, সুখে থাকার ডিসিশন নিন। জীবনের প্রতিটা মুহূর্তকে সেরা করে তুুলুন। জীবনকে উপভোগ করার যে তীব্র ইচ্ছে সেটাই সবচেয়ে বড় স্বপ্ন। এখানে কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

 

বর্ণ টিভি